সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, গোলাগুলির ঘটনায় সুষ্ঠ ভোট নিয়ে উভয় সংশয় প্রকাশ

বিশেষ প্রতিনিধি: আগামী ৩১ মার্চ নোয়াখালীর সাতটি উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে এ নির্বাচন কে ঘিরে নোয়াখালীর বিভিন্ন উপজেলায় প্রার্থীদের ও সমর্থকদের মাঝে উত্তেজনা চলছে।

কবিরহাট উপজেলায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কামরুর নাহার শিউলি ও বিদ্রোহী প্রার্থী আনারস প্রতীকের প্রার্থী আলাবক্স তাহের টিটু সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, গোলাগুলির ঘটনায় একে অপরকে দায়ী করে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১ টার সময় নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুর নাহার শিউলি তার বাড়ীতে সংবাদ সম্মেলন করেন। অপরদিকে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আলাবক্স তাহের টিটুও তার নিজ বাড়িতে পৃথক সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে এ ঘটনার জন্য একে অপরকে দায়ী করেন এবং সুষ্ঠ ভোট নিয়ে উভয় সংশয় প্রকাশ করেন।

এদিকে নির্বাচনে ভোটগ্রহণকে ঘিরে আইন শৃঙ্খলার অবনতির আশংকায় কবিরহাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন।

শুক্রবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন থেকে এই সংক্রান্ত একটি চিঠি পেয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. রবিউল আলম।

তিনি বলেন, কমিশন থেকে কবিরহাট উপজেলা নির্বাচন পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।