• শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
সোশ্যাল মিডিয়ায় সবচেয়ে বেশি সময় কাটায় যে দেশের মানুষ বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটিতে বাংলাদেশের প্রথম ক্লাউড ডেটা সেন্টার: মেঘনা ক্লাউডের কার্যক্রম শুরু নোবিপ্রবির সঙ্গে তুরস্কের পামুক্কালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমঝোতা স্মারক (MOU) স্বাক্ষর সেনবাগে ভোর রাতে ঘরে ঢুকে স্ত্রী,কন্যা ও শাশুড়িকে কুপিয়ে জখম বেগমগঞ্জ পার্ক থেকে অস্ত্র’সহ কিশোরগ্যাংয়ের ৫সদস্য আটক এইচ এম ইব্রাহিম এমপিকে জনশক্তি ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করায় গণসংবর্ধনা বেগমগঞ্জে বাবার জানাজা শেষে ছেলের মৃত্যু  নুর নবী টিপু বিএ (অনার্স) এমএ কে উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় বেগমগঞ্জবাসী পেমেন্ট খাতের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানসমূহকে সম্মাননা দিল ডিজিটাল পেমেন্টে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান ভিসা ট্রাস্ট সফট বিডি: বাংলাদেশে একটি বিশ্বস্ত আইটি সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান

ঘূর্ণিঝড় মোখা নিকটবর্তী হওয়ায় নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার সঙ্গে নৌ যোগাযোগ বন্ধ

আমার নোয়াখালী ডেস্ক
আমার নোয়াখালী ডেস্ক
আপডেটঃ : রবিবার, ১৪ মে, ২০২৩
ঘূর্ণিঝড় মোখা নোয়াখালী

ঘূর্ণিঝড় মোখা উপকূলের নিকটবর্তী হওয়ায় সাগর উত্তাল থাকায় নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার সঙ্গে সারা দেশের নৌ যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সকল নৌযানকে উপকূলের কাছাকাছি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার (১২ মে) বিকেল থেকে দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার সঙ্গে হাতিয়া-ঢাকা লঞ্চ চলাচল, হাতিয়া-চট্টগ্রাম, হাতিয়া-ভোলা স্টিমার চলাচল ও হাতিয়া-বয়ারচর চেয়ারম্যান ঘাট সি-ট্রাক চলাচল বন্ধ রয়েছে।

জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় মোখার প্রভাবে হাতিয়ার মেঘনা ও পাশ্ববর্তী বঙ্গোপসাগর উত্তাল রয়েছে, চলছে ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেত। পারাপারে ঝুঁকি থাকায় শুক্রবার বিকেল থেকে সাময়িকভাবে নৌ-চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। এ কারণে দেশের অন্য কোথাও থেকে লোকজন হাতিয়ায় আসতে পারছেন না এবং হাতিয়া থেকে কেউ দ্বীপের বাইরেও যেতে পারছেন না।

হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. কায়সার খসরু বলেন, মানুষের জানমাল রক্ষায় শুক্রবার বিকেল থেকে হাতিয়ার সঙ্গে সারা দেশের সব ধরনের নৌ-যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। সব নৌ-যানকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোনের মিডিয়া কর্মকর্তা লে. বিএন কে এম শফিউল কিঞ্জল বলেন, বর্তমানে বাতাসের চাপের তারতম্য রয়েছে। সমুদ্র বন্দর ও উপকূলীয় এলাকায় ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। কোস্টগার্ডের পক্ষ থেকে সকল নৌযানকে নিরাপদ স্থানে থাকার জন্য বলা হয়েছে।

নোয়াখালী জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান ঢাকা বলেন, নোয়াখালী ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় এসেছে। ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় জেলা প্রশাসন সকল প্রস্তুতি নিয়েছে। ইতোমধ্যে ৪৬৩টি আশ্রয় কেন্দ্র ও ৩টি মুজিব কিল্লা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যার ধারণ ক্ষমতা ৩ লাখ ৩ হাজার ৬০০ জন। সিপিপির ৮৩৮০ জন এবং রেড ক্রিসেন্টের ৫৭০ জন স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত আছেন। সকল সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারীকে কর্মস্থলে থাকতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি সর্বস্তরের জনপ্রতিনিধিদের নিজ নিজ এলাকায় থাকার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। সকল সরকারি-বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত রাখা হয়েছে।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেইসবুকে আমার নোয়াখালী