• শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:০০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
সোশ্যাল মিডিয়ায় সবচেয়ে বেশি সময় কাটায় যে দেশের মানুষ বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটিতে বাংলাদেশের প্রথম ক্লাউড ডেটা সেন্টার: মেঘনা ক্লাউডের কার্যক্রম শুরু নোবিপ্রবির সঙ্গে তুরস্কের পামুক্কালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমঝোতা স্মারক (MOU) স্বাক্ষর সেনবাগে ভোর রাতে ঘরে ঢুকে স্ত্রী,কন্যা ও শাশুড়িকে কুপিয়ে জখম বেগমগঞ্জ পার্ক থেকে অস্ত্র’সহ কিশোরগ্যাংয়ের ৫সদস্য আটক এইচ এম ইব্রাহিম এমপিকে জনশক্তি ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করায় গণসংবর্ধনা বেগমগঞ্জে বাবার জানাজা শেষে ছেলের মৃত্যু  নুর নবী টিপু বিএ (অনার্স) এমএ কে উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় বেগমগঞ্জবাসী পেমেন্ট খাতের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানসমূহকে সম্মাননা দিল ডিজিটাল পেমেন্টে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান ভিসা ট্রাস্ট সফট বিডি: বাংলাদেশে একটি বিশ্বস্ত আইটি সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান

হাতিয়া প্রতিনিধি

হাতিয়ায় স্থানীয়দের নিজস্ব অর্থায়নে কোটি টাকা ব্যায়ে নদীর তীর রক্ষা প্রকল্পের কাজ শুরু

আমার নোয়াখালী ডেস্ক
আমার নোয়াখালী ডেস্ক
আপডেটঃ : রবিবার, ৩০ মে, ২০২১
হাতিয়ায় স্থানীয়দের নিজস্ব অর্থায়নে কোটি টাকা ব্যায়ে নদীর তীর রক্ষা প্রকল্পের কাজ শুরু
ফাইল ফটো

হাতিয়া প্রতিনিধি : সম্পূর্ন নিজস্ব অর্থায়নে কোটি টাকা ব্যায়ে নদীর তীর রক্ষা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে স্থানীয়রা। করোনা মহামারির কারনে ছোট পরিসরে নোয়াখালী দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার নলচিরা ঘাটে রবিবার সকালে মিলাদ ও দোয়ার মাধ্যমে বালু ভর্তি ও ডাম্পিং এর কাজ শুরু করা হয়েছে ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন হাতিয়া নদী শাসন ও তীর সংরক্ষন কমিটির সভাপতি আলহাজ¦ মহিউদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন মুহিন অন্যান্য সদস্যরা ছাড়াও বিভিন্ন পেশার প্রায় শতাধিক প্রতিনিধি। এর মাধ্যমে এই দ্বীপের লাখ মানুষের স্বপ্ন বাস্তবায়ন এখন দ্বারপ্রান্তে।

জানাযায়, সম্প্রতি স্থানীয় ব্যবসায়ী,শিক্ষক, গ্রাম্য ডাক্তার, প্রবাসী, পরিবহন মালিক, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক ব্যাক্তিদের নিজস্ব অর্থায়নে জিও ব্যাগ পেলে নদীর তীর রক্ষার উদ্যোগ নিয়েছে স্থানীয়রা। প্রাথমিক পর্যায়ে এই কাজে ব্যায়ে বরাদ্ধ নির্ধারন করা হয়েছে প্রায় ৪ কোটি টাকা।সম্প্রতি নোয়াখালী দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার নলচিরা ঘাটের পাশে প্রায় ৭শত মিটার নদীর তীর এলাকায় এই জিও ব্যাগ দিয়ে নদী ভাঙ্গন রোধ করার সিদ্বান্ত নেওয়া হয়েছে। এ জন্য গঠন করা হয়েছে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। করোনার কারনে সরকার একটি পরিপত্র জারি করে সকল উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ স্থগিত করে। এই কারনে স্থানীয়রা নিজেদের ভিটে মাটি রক্ষায় এই উদ্যোগ নিয়েছে।

ইতিমধ্যে বিভিন্ন পেশার মানুষ তাদের ভিটে মাটি রক্ষায় এই সংগঠনের নিকট অর্থের অনুদান দেওয়া শুরু করেছে। এই অনুদান গ্রহনের কার্যক্রম শুরু হয়েছে গত ৩ মে থেকে । গত এক মাসে নদীর তীর রক্ষায় অনুদান জমা পড়েছে প্রায় ৬৮ লাখ টাকা। যা সংগঠনের নিজস্ব ব্যাংক হিসাবে রাখা হয়েছে। এই জন্য গাজীপুরের একটি কারখানা থেকে দুই ধাপে আনা হয়েছে ২৪ হাজার জিও ব্যাগ। বালু ভর্তি ও ডাম্পিং এর জন্য রংপুর জেলা থেকে আসা অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ৫০ সদস্যের একটি শ্রমিক গ্রæপ এই কাজ বাস্তবায়ন করছে। আজ রবিবার আনুষ্ঠানিক ভাবে এই কাজের শুরুর মাধ্যমে বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে এই দ্বীপের লাখ মানুষের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেইসবুকে আমার নোয়াখালী